icon
Article Details

নোটিশ: পেমেন্ট সংক্রন্ত নীতিমালা পরিবর্তন করা হয়েছে। নীতিমালা পড়ে একশন নেয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো। অন্যথায় পেমেন্ট নিয়ে বিরম্বনায় পড়তে পারেন। বিস্তারিত বিস্তারিত এখানে

Shared Hosting কি? শেয়ার্ড হোস্টিং এর সুবিধা ও অসুবিধা । আপনি কোনটা নিবেন?

img by Mariam
06 Jul, 2024

Shared Hosting হচ্ছে একটি ওয়েব হোস্টিং পরিষেবা যেখানে একাধিক ওয়েবসাইট একই সার্ভারে রাখা হয়। এই পরিষেবাটি সাধারণত ছোট ও মাঝারি ওয়েবসাইট এবং ব্লগের জন্য ব্যবহৃত হয় কারণ এটি সস্তা এবং সহজে ব্যবহারের উপযোগী।

Shared Hosting এর সুবিধা

  1. খরচ কম (Cheap Price): শেয়ার্ড হোস্টিং এর অন্যতম বড় সুবিধা হচ্ছে এর খরচ। যেহেতু একই সার্ভার একাধিক ওয়েবসাইট শেয়ার করে, তাই সার্ভারের খরচ সকলের মধ্যে ভাগ হয়ে যায়। ফলে এটি সস্তা হয়।

  2. সহজ সেটআপ (Easy Setup): Shared Hosting পরিষেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলি সাধারণত সহজ সেটআপ প্রক্রিয়া প্রদান করে। আপনি সহজেই একাউন্ট খুলে ওয়েবসাইট চালু করতে পারেন।

  3. ম্যানেজড হোস্টিং(Fully Managed) : বেশিরভাগ Shared Hosting প্রোভাইডার প্রতিষ্ঠানই ম্যানেজড হোস্টিং সেবা প্রদান করে। এটি মানে আপনি সার্ভারের টেকনিক্যাল দিকগুলি নিয়ে চিন্তা করতে হবে না।

  4. নিয়মিত ব্যাকআপ (Auto Backup): অনেক Shared Hosting প্রোভাইডার নিয়মিত ব্যাকআপ সেবা প্রদান করে। ফলে আপনার ডেটা নিরাপদ থাকে।

  5. সহজে আপগ্রেড (Easy Upgrade): যখন আপনার ওয়েবসাইট বড় হয় বা আরও রিসোর্স প্রয়োজন হয়, তখন আপনি সহজেই হাইতর প্ল্যানে আপগ্রেড করতে পারেন।

আরও পড়ুন: ওয়েব হোস্টিং কেনার আগে যে বিষয়গুলি আপনাকে জানতেই হবে- নতুবা নিশ্চিত ঠকবেন

Shared Hosting এর অসুবিধা

  1. কম পারফরম্যান্স: যেহেতু একই সার্ভার একাধিক ওয়েবসাইট শেয়ার করে, তাই সার্ভারের রিসোর্স সকলের মধ্যে ভাগ হয়। ফলে আপনার ওয়েবসাইটের পারফরম্যান্স কম হতে পারে।

  2. সিকিউরিটি ইস্যু: যেহেতু একই সার্ভারে একাধিক ওয়েবসাইট রাখা হয়, তাই একটি ওয়েবসাইটের সিকিউরিটি ইস্যু হলে অন্য ওয়েবসাইটগুলিরও ক্ষতি হতে পারে।

  3. কাস্টমাইজেশন সীমিত: শেয়ার্ড হোস্টিং সার্ভারে আপনার কাস্টমাইজেশন সীমিত থাকে। আপনি সার্ভারের কিছু নির্দিষ্ট অংশে পরিবর্তন করতে পারবেন না।

  4. IP শেয়ারিং: একই IP এড্রেস একাধিক ওয়েবসাইট শেয়ার করে। এর ফলে, যদি একটি ওয়েবসাইট স্প্যামিং বা অন্য কোন বেআইনি কাজ করে, তাহলে সেই IP ব্লক হতে পারে, যা আপনার ওয়েবসাইটের উপরও প্রভাব ফেলতে পারে।

কেন Shared Hosting কিনবেন

  1. সস্তা ও সাশ্রয়ী: যদি আপনি নতুন একটি ওয়েবসাইট শুরু করতে চান এবং আপনার বাজেট কম থাকে, তাহলে Shared Hosting হতে পারে আপনার জন্য সেরা পছন্দ।

  2. সহজ ব্যবহারের উপযোগী: আপনি যদি টেকনিক্যাল বিষয়ে অভিজ্ঞ না হন, তাহলে শেয়ার্ড হোস্টিং আপনার জন্য উপযুক্ত। এটি সহজে ব্যবহারের উপযোগী এবং ম্যানেজড হোস্টিং সুবিধা প্রদান করে।

  3. ছোট ও মাঝারি ওয়েবসাইটের জন্য উপযুক্ত: ছোট ও মাঝারি ওয়েবসাইট বা ব্লগের জন্য Shared Hosting যথেষ্ট। এটি সস্তা এবং প্রয়োজনীয় সব সুবিধা প্রদান করে।

কেন আপনার জন্য Shared Hosting উপযুক্ত নয়

  1. বড় ও হাই ট্রাফিক ওয়েবসাইটের জন্য নয়: যদি আপনার ওয়েবসাইট বড় হয় বা আপনার অনেক বেশি ট্রাফিক থাকে, তাহলে শেয়ার্ড হোস্টিং আপনার জন্য উপযুক্ত নয়। এটি কম রিসোর্স প্রদান করে যা বড় ওয়েবসাইটের জন্য পর্যাপ্ত নয়।

  2. সর্বোচ্য নিরাপত্তার প্রয়োজন হলে নয়: যদি আপনার ওয়েবসাইটের সর্বোচ্য নিরাপত্তার প্রয়োজন হয়, তাহলে Shared Hosting আপনার জন্য উপযুক্ত নয়। এটি কম সিকিউরিটি প্রদান করে এবং একই সার্ভারে একাধিক ওয়েবসাইট থাকার কারণে নিরাপত্তা ঝুঁকি বাড়ে।

  3. কাস্টমাইজেশন প্রয়োজন হলে নয়: যদি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য কাস্টমাইজেশন প্রয়োজন হয়, তাহলে শেয়ার্ড হোস্টিং উপযুক্ত নয়। এটি সীমিত কাস্টমাইজেশন সুবিধা প্রদান করে।

সংক্ষেপে শেয়ার্ড হোস্টিং

  • Shared Hosting Provider: আপনি বিভিন্ন Hosting Provider যাচাই করে আপনার সেরা Shared Hosting Provider বেছে নিতে পারেন।
  • Best Hosting for Small Business: ছোট ব্যবসার জন্য সেরা হোস্টিং সার্ভিস হচ্ছে শেয়ার্ড হোস্টিং।
  • Affordable Web Hosting: কম খরচে ওয়েব হোস্টিং পরিষেবা খুঁজছেন? Shared Hosting হতে পারে আপনার জন্য সেরা পছন্দ।
  • Managed Hosting Service: সাধারণত শেয়ার্ড হোস্টিং এর সাথে ম্যানেজড হোস্টিং সার্ভিস পাওয়া যায়, যা আপনার কাজ সহজ করে।
  • Web Hosting for Beginners: নতুনদের জন্য ওয়েব হোস্টিং সার্ভিস হিসাবে Shared Hosting একটি ভাল পছন্দ।

শেয়ার্ড হোস্টিং এর ভবিষ্যৎ

যদিও Shared Hosting বর্তমানে অনেক জনপ্রিয়, কিন্তু প্রযুক্তির উন্নতির সাথে সাথে এর ভবিষ্যৎ সম্পর্কে কিছু চিন্তা করা যেতে পারে। নতুন নতুন প্রযুক্তি এবং হোস্টিং প্ল্যাটফর্মের আগমনের ফলে Shared Hosting এর কিছু সীমাবদ্ধতা হয়ত দূর হতে পারে, তবে এর মৌলিক বৈশিষ্ট্যগুলি একই থাকবে।

  1. ক্লাউড টেকনোলজি ইন্টিগ্রেশন: ক্লাউড টেকনোলজির সাথে ইন্টিগ্রেশন হতে পারে শেয়ার্ড হোস্টিং এর ভবিষ্যৎ। এটি হোস্টিং সার্ভারগুলির পারফরম্যান্স এবং নিরাপত্তা উন্নত করতে পারে।

  2. উন্নত সিকিউরিটি: ভবিষ্যতে Shared Hosting সার্ভারগুলির নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও উন্নত হতে পারে। উন্নত সিকিউরিটি প্যাকেজ এবং নিয়মিত আপডেটের মাধ্যমে সিকিউরিটি ইস্যু মোকাবেলা করা যেতে পারে।

  3. স্কেলেবিলিটি: Shared Hosting এর স্কেলেবিলিটি বাড়ানোর জন্য নতুন নতুন পদ্ধতি গ্রহণ করা হতে পারে, যা ব্যবহারকারীদের আরও বেশি রিসোর্স প্রদান করতে সক্ষম হবে।

শেয়ার্ড হোস্টিং এর বিকল্প

যদিও Shared Hosting সাশ্রয়ী এবং সহজ ব্যবহারের উপযোগী, তবে কিছু বিকল্প রয়েছে যা আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী ভাল হতে পারে।

  1. VPS Hosting (Virtual Private Server Hosting): VPS Hosting হচ্ছে এমন একটি হোস্টিং পরিষেবা যেখানে একটি সার্ভারকে ভার্চুয়ালাইজ করে একাধিক ভিপিএস তৈরি করা হয়। এটি আপনাকে আরও বেশি রিসোর্স এবং নিয়ন্ত্রণ প্রদান করে।

  2. Dedicated Hosting: Dedicated Hosting হচ্ছে এমন একটি পরিষেবা যেখানে আপনি সম্পূর্ণ একটি সার্ভার ব্যবহার করতে পারবেন। এটি হাই পারফরম্যান্স এবং নিরাপত্তা প্রদান করে, তবে খরচ বেশি।

  3. Cloud Hosting: Cloud Hosting হচ্ছে এমন একটি পরিষেবা যেখানে আপনার ওয়েবসাইট ক্লাউড সার্ভার ব্যবহার করে হোস্ট করা হয়। এটি হাই স্কেলেবিলিটি এবং নির্ভরযোগ্যতা প্রদান করে।

  4. Managed WordPress Hosting: যদি আপনার ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস ভিত্তিক হয়, তাহলে Managed WordPress Hosting হতে পারে একটি ভাল বিকল্প। এটি বিশেষভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটগুলির জন্য ডিজাইন করা হয়েছে এবং উন্নত পারফরম্যান্স ও নিরাপত্তা প্রদান করে।

Shared Hosting এর প্রয়োজনীয়তা এবং কাদের জন্য উপযুক্ত

  1. নতুন ওয়েবসাইট মালিকদের জন্য: যারা নতুন একটি ওয়েবসাইট শুরু করতে যাচ্ছেন এবং টেকনিক্যাল বিষয়ে খুব বেশি অভিজ্ঞ নন, তাদের জন্য শেয়ার্ড হোস্টিং আদর্শ।

  2. ছোট ব্যবসার জন্য: ছোট ব্যবসার ওয়েবসাইটগুলির জন্য শেয়ার্ড হোস্টিং একটি সাশ্রয়ী এবং কার্যকরী সমাধান।

  3. ব্লগারদের জন্য: ব্লগারদের জন্য শেয়ার্ড হোস্টিং আদর্শ, কারণ এটি সস্তা এবং সহজে ব্যবহারের উপযোগী।

  4. শিক্ষার্থীদের জন্য: যারা ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখছেন বা পরীক্ষা করছেন, তাদের জন্য Shared Hosting একটি ভাল বিকল্প। এটি সস্তা এবং সহজে ব্যবহার করা যায়।- tracking Code: 152028

Shared Hosting এর কয়েকটি প্রোভাইডার

শেয়ার্ড হোস্টিং প্রোভাইডার বেছে নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। কিছু জনপ্রিয় প্রোভাইডারের মধ্যে রয়েছে:

  1. Bluehost: Bluehost একটি জনপ্রিয় Shared Hosting প্রোভাইডার, যা নতুন ও অভিজ্ঞ উভয়ের জন্যই উপযুক্ত।

  2. HostGator: HostGator এর Shared Hosting পরিষেবা সস্তা এবং নির্ভরযোগ্য।

  3. SiteGround: SiteGround উন্নত পারফরম্যান্স এবং নিরাপত্তা প্রদান করে।

  4. A2 Hosting: A2 Hosting দ্রুত গতি এবং চমৎকার গ্রাহক সেবা প্রদান করে।

  5. InMotion Hosting: InMotion Hosting একটি জনপ্রিয় প্রোভাইডার, যা ভাল পারফরম্যান্স এবং গ্রাহক সেবা প্রদান করে।

আমাদের শেষ কথা

Shared Hosting একটি সাশ্রয়ী, সহজে ব্যবহারের উপযোগী এবং নতুন ও ছোট ওয়েবসাইটের জন্য আদর্শ ওয়েব হোস্টিং পরিষেবা। তবে, বড় এবং হাই ট্রাফিক ওয়েবসাইট বা সবোর্চ নিরাপত্তার প্রয়োজন হলে এটি উপযুক্ত নয়। আপনার প্রয়োজন এবং বাজেট অনুযায়ী হোস্টিং প্রোভাইডার নির্বাচন করুন এবং আপনার ওয়েবসাইটের সাফল্যের পথে এগিয়ে যান।

সংক্ষেপে, Shared Hosting এর সুবিধা ও অসুবিধা সম্পর্কে জেনে এবং আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, আপনি একটি সফল ওয়েবসাইট পরিচালনা করতে পারবেন।

Related News

View All

To Write Your Thoughts Please Log in First

Login
Home
Task
My Team
Latest News
User Guide